১০ ই জানুয়ারি ১৯৭২
অবশেষে নেতা ফিরলেন।
আকাশ হতে ঝরে পরলো পুস্প বৃষ্টি।
আপন স্বদেশে পা রাখতেই
তিনি কাঁদলেন,কাঁদালেন।
সাতকোটি মানুষের
চৌদ্দ কোটি চোখের জলে
ভেসে গেলো
দীর্ঘ নয়মাসের সনিত স্রাব।
নেতা এলেন পিতা এলেন
বিধ্বস্ত জনপদের অবিভাবক হয়ে।
শ্মশান বাংলাকে সোনার বাংলায়
নিতে হবে।
এ এক কঠিন গুরুদায়িত্ব
পিতা নেমে পরলেন,
রাজপথ অলিগলি, শহর
ছেড়ে গ্রাম গ্রামান্তরে।
বিধ্বস্ত জনপদ
চারিদিকে লোভাতুর চোখ।
নেতা হুঙ্কার দিলেন
দূর্নীতিবাজদের কোন দল নেই
কোন ঠাঁই নেই।
নড়ে চড়ে বসলো দূর্নীতির ঠাকুরেরা।
কঠিন ছকে ঘিরে ফেললো
বত্রিশ নম্বর বাড়ি।
পিতা সিড়ি ভেঙে নামতে নামতে
শুধালেন, কি চাস তোরা?
সহজ সরল মনের জিজ্ঞাসা।
শব্দহীন কালো পিচাশের দল।
হঠাৎ গর্জে উঠে স্টেনগান
হার মেনে যায় পিতার বজ্র কন্ঠ-
রক্ত যখন দিয়েছি– আরো রক্ত দেবো—
মূহুর্তেই রক্তের ফিনকি
ছিটকে পড়ে দেয়ালে –
চমকে ওঠে কালো পিচাশের দল
এ কি?
এ-তো দেখি বাংলাদেশেরই
            মানচিত্র!